বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১২:৩২ পূর্বাহ্ন

হাতীবান্ধায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের উপর আওয়ামীলীগ সমর্থকদের হামলার অভিযোগ,আহত- ৯

হাতীবান্ধায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের উপর আওয়ামীলীগ সমর্থকদের হামলার অভিযোগ,আহত- ৯

জেলা প্রতিনিধি,লালমনিরহাট।

লালমনিরহাট -১ (হাতীবান্ধা-পাটগ্রাম) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আতাউর রহমানের ঈগল পাখী প্রতীকে সমর্থকদের উপর হামলা ও নির্বাচনী অফিস ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগ সমর্থকদের বিরুদ্ধে।  এতে ৯ জন আহত হয়।

আহতদের হাতীবান্ধা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি করা হয়েছে।

রোববার (২৪ ডিসেম্বর) রাত ৮টায় ওই পাটগ্রাম ও হাতিবান্ধা  উপজেলার দোয়ানী সাধুরবাজার ও মিলন বাজার এলাকায় এ হামলা ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, সাজ্জাদ হোসেন (২১) মনির (২০),বাদল মিয়া (৩৮),রমজান আলী(৩২),
আল আমিন (১৮),বিপ্লব হোসে (১৯),
অর্নব(২৪), মাছুম হোসেন (২৮) ও পাটগ্রাম উপজেলার যুবলীগের ক্রীড়া সম্পাদক রাসেল(৩০) আহত হন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,হাতীবান্ধা উপজেলার গুড্ডিমারী ইউনিয়নের দোয়ানি সাধুর বাজার এলাকায় রাত ৮ টার সময় স্বতন্ত্র প্রার্থী আতাউর রহমানের পক্ষে ঈগল মার্কার সমর্থকরা একটি মিছিল বের করলে নৌকার সমর্থকরা হামলা চালান। এর পর ঈগল পাখী প্রতীকের নির্বাচনি অফিস ভাংচুর করে। এর পরে একই উপজেলার মিলন বাজার এলাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর ঈগল প্রতিকের অফিস ভাংচুর করে ঈগল মার্কার সমর্থকদের মারপিট করার অভিযোগ উঠেছে এতে ঈগল মার্কার ৮ জন সমর্থক আহত হয়। আহতদের হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এর আগে পাটগ্রাম উপজেলা যুব লীগের ক্রিয়া সম্পাদক ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ঈগল পাখি মার্কার সমর্থক রাসেল(৩০)কে নৌকার সমর্থকরা মারধর করে। এতে গুরুতরত আহত অবস্থায় তাকে পাটগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে লালমনিরহাট-১ (হাতীবান্ধা পাটগ্রাম)আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আতাউর রহমান প্রধান বলেন, ঈগল পাখি মার্কার জনপ্রিয়তা দেখে আমাদের নির্বাচনীয় অফিস ভাঙচুর এবং আমাদের সমর্থকদের মারধর করছেন নৌকা প্রার্থীর সমর্থকরা। এ বিষয়ে আমরা অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

এ বিষয়ে হাতীবন্ধা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও গড্ডিমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামলে মোবাইল ফোনে একাধিকবার চেষ্টা করেও তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

হাতীবান্ধা উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের
আবাসিক মেডিকেল অফিসার আনোয়ারুল হক বলেন, আহত ৮ জনকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভর্তি করে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সি সাইফুল ইসলাম বলেন, অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে একটি মিছিল পূর্ববর্তী মিছিলে হাতাহাতি ও কিছু পোস্টার সেরে ফেলা হয়। পরে ঘটনাস্থলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও আমি উপস্থিত হই। বর্তমান পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এ ঘটনায় অভিযোগ দিলে প্রয়োজনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024 Rangpurtimes24.Com
Developed BY Rafi IT