বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১২:১৭ পূর্বাহ্ন

হাতীবান্ধায় রাতে আধাঁরে জমির ধান কেটে নিয়ে গেল প্রতিপক্ষ 

হাতীবান্ধায় রাতে আধাঁরে জমির ধান কেটে নিয়ে গেল প্রতিপক্ষ 

হাতীবান্ধায় (লালমনিরহাট) প্রতিনিধি:

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় আদালতের আদেশ অমান্য করে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রাতে আধাঁরে ১ একর ১৭ শতক জমির পাকা  ধান কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষ খতিবর রহমান (লতিফ) গংদের  বিরুদ্ধে।

রোববার ভোরে হাতীবান্ধা উপজেলার ফকিরপাড়া ইউনিয়নের দালালপাড়া গ্রামের মৃত. রহমত উল্ল্যা শেখের ছেলে আব্দুস ওয়াজেদ এর নিজ নাময়ীয় ক্রয়কৃত ভোগ দখলীয় ১ একর ১৭ শতক জমির পাকা ধান পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রাতের আধারে কেটে নিয়ে গেছে প্রতিপক্ষ খতিবর রহমান (লতিফ) গং বলে দাবী করেছেন আব্দুস ওয়াজেদ। তিনি অভিযোগ করে বলেন, প্রায় ১৭/১৮ বছর আগে আমি উক্ত জমি ক্রয় করেছি এবং তখন থেকে ভোগদখল করে আসিতেছি। ইত্যেমধ্যে আমার প্রতি পক্ষ একই এলাকার মৃত নিরগিন শেখের ছেলে খতিবর রহমান (লতিফ) গং তাদের দলিলকৃত নিজের জমি দাবী করে জমি জবরদখল করার চেষ্টা করছিল।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যানের মাধ্যমে সালিশ বৈঠকের রায় তারা মেনে না নিয়ে আবারো জমি দখলের চেষ্টা করলে আমি নিরুপায় হয়ে লালমনিরহাট আদালতে মামলা দাখিল করি। আদালত ১৪৪ধারা জারি করে জমির উপর উঠার নিষেধ করলেও তারা আদালতের আদেশ অমান্য করে গতশনিবার দিনগত গভির রাতে আমার ১একর ১৭ শতক জমির ধান কেটে নিয়ে যায়। ধানের পরিমান প্রায় ৮০ মন হবে। আমি নিরুপায় হয়ে প্রশাসনের কাছে ন্যায় বিচার চাচ্ছি।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত  খতিবর রহমান (লতিফ) বলেন,যেহেতু জমির উপর ১৪৪ ধারা জারি আছে তাই আমি আদালত এর নিষেধ অমান্য করে ধান কেটে নিয়ে আসি নাই। আব্দুস ওয়াজেদ গং জমির  ধান কেটে নিয়ে জেয়ে আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে।

এ বিষয়ে ফকিরপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান ফজৱার রহমান খোকন বলেন, জমি নিয়ে দুই পক্ষের মামলা চলমান রয়েছে। তার মধ্যে কে বা কারা রাতে ধান কেটে নিয়ে গেছে এক পক্ষ অপর পক্ষকে দোষারোপ করছেন।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি শাহ আলম বলেন,ধান কাটার বিষয়ে এখন পর্যন্ত কেউ থানায় অভিযোগ করেনি।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024 Rangpurtimes24.Com
Developed BY Rafi IT