মঙ্গলবার, ১৮ Jun ২০২৪, ০২:১৮ অপরাহ্ন

রংপুরে জমি বায়নাপত্র করে দখল করার অভিযোগ, ভূক্তভোগীর সংবাদ সম্মেলন

রংপুরে জমি বায়নাপত্র করে দখল করার অভিযোগ, ভূক্তভোগীর সংবাদ সম্মেলন

সাড়ে দশ লক্ষ টাকা হাওলাত নিয়ে ছেলেকে বিদেশ পাঠানোকে কেন্দ্র করে ৩য় পক্ষ জোরপূর্বক জমি বায়নাপত্র করে জমি দখল করার অভিযোগে ভূক্তভোগী পরিবারটি সংবাদ সম্মেলন করেন।

মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) সকালে নগরীর সিয়োবাজার এলাকার একটি রেস্টুরেন্টে উক্ত সংবাদ সম্মেলনে রংপুর কোতয়ালী আরপিএমপি থানাধীন উত্তর কেল্লাবন্দ এলাকার মৃত ধনি শেখের ছেলে মোঃ নুর ইসলাম শেখ (৫০) সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, আমি একজন সৌদি প্রবাসী।

 

আমার পরিচিত মোঃ রেজাউল ইসলামের নিকট বিগত সময় সাড়ে ১০ লক্ষ টাকা নিয়ে আমার ছেলেকে বিদেশে পাঠাইয়া দেই। আমি উক্ত রেজাউলকে সময় মত টাকা ফেরত দিতে না পারায় সে উত্তর কেল্লাবন্দ এলাকার প্রভাবশালী মোঃ মজিবর রহমানকে বিচার দেয়। উক্ত বিষয়ে মোঃ মজিবর রহমানের বাড়ীতে বৈঠক বসিলে আমি রেজাউলকে নগদ আড়াই লক্ষ টাকা প্রদাান করি এবং বাকী ৮ লক্ষ টাকা আস্তে আস্তে দিতে চাই। কিন্তু মজিবর রহমান তাহা না মানিয়া অবৈধ জনতায় দলবদ্ধ হইয়া আমাকে ও আমার স্ত্রীকে মারপিট খুন জখমের ভয়ভীতি হুমকী প্রদান কওে এবং জোরপূর্বক আমার স্ত্রী মোছাঃ আনোয়ারা বেগমের নামীয় জনতা ব্যাংক শিল্পনগরী শাখা চেকে ও তিনটি ১০০ টাকার ননজুডিশিয়াল ফাঁকা ষ্ট্যাম্পে সহি করিয়া নেয়। এরপর তারা রংপুর সদর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে লইয়া আসিয়া আমার বাড়ীর ও জমি বিক্রয়ের বায়না দলিলে নিরুপায় হয়ে আমি ও আমার স্ত্রীর সহি করি। এরপর তারা আমাদেরকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়ে বাড়ি দখলে নেয়।

 

এতে আমার ছেলে বাধা দিলে তাকে ক্রিকেটের ষ্ট্যাম্প দিয়া হত্যার উদ্দেশ্যে আমার ছেলের মাথায় আঘাত করিলে আমার ছেলে সরিয়া গেলে উক্ত আঘাত আমার ছেলের বাম পায়ের হাটুর নিচে লাগিয়া মাংসের রগ ছিড়িয়া গুরুতর আঘাত প্রাপ্ত হয়। আমার স্ত্রী সন্তান পার্শ্ববর্তী বাড়ীতে গিয়া আশ্রয় গ্রহন করে। আমার ছেলেকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে লইয়া গিয়া ভর্তি করিয়া দেয়। আসামীগন আমার অর্ধ নির্মিত বিল্ডিং এর উপরে নতুন করিয়া ইট গাঁথিতে থাকে। আমি ঘটনার সংবাদ পাইয়া দ্রত বিষয়টি ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে অবগত করিলে তিনি প্রতিনিধি পাঠাইয়া দিয়া বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করেন। এলাকাবাসী ইতি, নুরবানু, শাহিন কাদেরী বলেন- মজিবর ভাই ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন। উনি একটি অসহায় পরিবারের সাথে যা করছেন সেটা কারো কাম্য নয়।

 

এ ব্যাপারে ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আমিনুর রহমান বলেন, আমি অভিযোগ পেয়ে মজিবর ভাইয়ের বাসায় আলোচনায় বসি। আলোচনার মাঝখানে তাদের লোক আমাদের উপর অতর্কিত হামলা করে। তারপরও পরে মজিবর ভাইকে বুঝিয়ে আমরা চলে আসি। পরে দেখি আমাদের নামে থানায় অভিযোগ করেছে। আমি চাই অসহায় পরিবারটি ন্যায় বিচার পায়। এ ব্যাপারে রেজাউলের বোন নুর জান্নাত বলেন, মজিবরকে অভিযোগ দিয়ে আমরা ভুল করেছি। তিনি আড়াইলক্ষ টাকা নিয়ে আমাদের একলক্ষ ত্রিশ হাজার টাকা দেন।

 

এখন আবার নুর ইসলামের জমি দখল করে বাসা করার পায়তারা করছে যা ঠিক হচ্ছে না। মজিবর রহমান বলেন, আমার নামে বায়না করে, আমি বাসার কাজ শুরু করেছি। জানতে চাইলে তিনি বলেন, বায়না করে কাজটা শুরু করা আমার সঠিক হয়নি। আবার জানতে চাইলে তিনি বলেন ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় আছে এর আগে বাসার কাজ করাটাও ঠিক হয়নি।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024 Rangpurtimes24.Com
Developed BY Rafi IT