মঙ্গলবার, ১৮ Jun ২০২৪, ০২:৫৬ অপরাহ্ন

বদরগঞ্জে অবৈধ ভাবে সরকারি জমি দখল করায় মানববন্ধন 

বদরগঞ্জে অবৈধ ভাবে সরকারি জমি দখল করায় মানববন্ধন 

নিজস্ব প্রতিবেদক :

রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার শেষ প্রান্ত গোপীনাথপুর ইউনিয়নে অবস্থিত মুচিরহাটে নবনির্মিত মুচিরহাট ডিজিটাল মার্কেটের সামনের ফাকা জমি স্থানীয় সংসদ সদস্যের সমর্থকদের জোরপূর্বক দখল করে জায়গা বিক্রি ও দোকান নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে।

সংসদ সদস্যের একান্ত ব্যক্তিগত সহকারী (পিএস) ও মুচিরহাটের স্থানীয় বাসিন্দা আবুল কালাম আজাদের গোপন নির্দেশেই এমপি সমর্থিত লোকজন হাটের সরকারি জমি জোরপূর্বক দখল করছে অভিযোগ এনে মুচিরহাট এলাকায় মানববন্ধন করা হয়।

মানববন্ধন শেষে অবৈধ দখলকারীদের উচ্ছেদের দাবীতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে মানববন্ধনকারীরা।

বৃহস্পতিবার (২০ জুলাই) দুপুরে উপজেলার প্রাণকেন্দ্র কমরেড জীতেন দত্ত বিজয় মঞ্চ চত্বরে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে অবৈধভাবে দোকান নির্মাণকারীদের উচ্ছেদ ও তাদের প্রশ্রয়দাতাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নিতে স্মারকলিপি দেওয়া হয়।

জানা যায়, গোপিনাথপুর ইউনিয়নে উপজেলার শেষ সীমানা মুচিরহাটে গ্রামীন হাটবাজার অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় মুচিরহাট ডিজিটাল মার্কেটের নবনির্মিত ভবনের সামনে হাটের সরকারি জায়গায় স্থানীয় এমপির প্রভাব দেখিয়ে অবৈধভাবে দখল করে প্রায় অর্ধ শতাধিক আধাপাকা দোকান নির্মাণের প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে।

মুচিরহাট এলাকার স্বপন, চন্দন, তোজা সহ নাম প্রকাশ না করার শর্তে অর্ধশতাধিক স্থানীয় ব্যবসায়ী, সাধারন জনগন ও সরকার দলীয় একাংশ লোকজন জানিয়েছেন, স্থানীয় সংসদ সদস্যের পিএস আজাদের আত্মীয়স্বজন ও তার সমর্থিত লোকজন টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের নিকট হাটের সরকারি জমি বিক্রি ও অবৈধভাবে দোকানপাট বসানোর অপচেষ্টা করছেন। ইতিমধ্যে হাট পরিচালনা কমিটি ও এমপির পিএস আজাদ হাটে নবনির্মিত ডিজিটাল মার্কেটের ভিতরে স্থানীয় ব্যবসাযীদের ঠাঁই না দিয়ে তাদের কে মার্কেটের সামনে দোকানপাট নির্মাণের নির্দেশ দেন বলে মানববন্ধনকারীরা জানায়। অবৈধভাবে প্রায় ৫০টি দোকান নির্মাণকাজ চলমান রয়েছে। এসব অবৈধ দোকানপাট নির্মাণকাজ বন্ধ সহ উচ্ছেদের দাবীতে এলাকাবাসী গণস্বাক্ষরিত একটি স্মারকলিপি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে প্রদান করেন।

তারপরও স্থানীয় এমপির পিএস ক্ষমতার অপব্যবহার করে লোকজন কে হাটের জায়গা অবৈধভাবে দখল করে দোকান নির্মাণকাজ চালাতে সহায়তা করার অভিযোগ উঠেছে। মানববন্ধনে বক্তারা বলেছেন, এমপির পিএস আজাদের হুকুমে সরকারী হাটের জায়গা দখল করে প্রায় অর্ধশতাধিক দোকান পাকা করণের কাজ চলমান রয়েছে, মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে এসব দোকান নির্মাণে সহায়তা করেন পিএস আজাদ।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার পাঠানো তদন্তকারী দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ওইসকল দোকান নির্মাণকাজ বন্ধ রাখার নিষেধ করার পরও উপজেলা প্রশাসনকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে নির্মাণকাজ চালিয়ে আসছেন অবৈধ দোকানদাররা। হাটের জমিতে দোকান নির্মাণে সরকারীভাবে এখন বরাদ্দ দেওয়া হয়নি। তার আগেই এমপির পিএস কে ম্যানেজ করে সরকারী হাটের জমি জবরদখল ও দোকান নির্মাণের প্রতিযোগিতা চলছে। এ বিষয়ে এলাকাবাসী সরকারী হাটের জমি জবরদখলদারদের হতে উদ্ধারে ও এমপির পিএস আজাদের শাস্তির দাবীতে দেশদরদী প্রধানমন্ত্রীর নিকট আগামী ৩০ জুলাই লিখিতভাবে স্মারকলিপি প্রদান করা হবে বলে মানববন্ধনে ঘোষণা দেন এলাকাবাসী।

অভিযুক্ত স্থানীয় সংসদ সদস্যের ব্যক্তিগত সহকারী (পিএস) আবুল কালাম আাজাদ বলেন, মুচিরহাট ডিজিটাল মার্কেট নির্মাণের জায়গাটিতে আগে প্রায় ৬৫টি দোকান চলমান ছিল। মার্কেট নির্মাণের বরাদ্দ হওয়ার পর সেইসকল দোকানদারদের সাথে বসে আলোচনা করে জায়গাটি ফাকা করা হয়। কিন্তু বর্তমানে অসহায় ব্যবসায়ীর অনুরোধে হাটের ইজাদার ২৫ জনকে হাটের সামনে দোকান বসানোর সুযোগ দেন হাটের ইজাদার। সেখানে স্বপন জায়গা চেয়েছিল কিন্তু মার্কেট নির্মাণের আগে স্বপনের সেখানে দোকান না থাকায় তাকে জায়গা দেওয়া হয়নি। এতে স্বপন আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে এসব ঘটাচ্ছে। আপনার প্রতি (রংপুর টাইমস নিজস্ব প্রতিবেদক) অনুরোধ আমাকে নিয়ে কিছু লিখবেন না।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু সাঈদ বলেন, মুচিরহাটে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা দোকানের নির্মাণকাজ বন্ধ সহ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024 Rangpurtimes24.Com
Developed BY Rafi IT