মঙ্গলবার, ১৮ Jun ২০২৪, ০২:২৬ অপরাহ্ন

পীরগাছায় ছেলের ছবি নিয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন অসহায় মা

পীরগাছায় ছেলের ছবি নিয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন অসহায় মা

পীরগাছা (রংপুর) প্রতিনিধি:

রংপুরের পীরগাছায় ছেলের অপারেশনের টাকা জোগাড় করতে মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন অসহায় মা বিলকিস বেগম (৪২)।

 

রোববার (৩১ ডিসেম্বর) বিকেলে উপজেলার অনন্তরাম আমবাড়ী গ্রামে ওই মাকে ছেলের ছবি নিয়ে মানুষের কাছে সাহায্য প্রার্থনা করতে দেখা যায়।

 

এসময় ওই মা জানান, তার বাড়ি পাশ্ববর্তী আসামপাড়া গ্রামে। তার দুই ছেলে। বড় ছেলে ঢাকায় থাকে, ছোট ছেলে বিজয় স্থানীয় সুলতান নামে এক ব্যক্তির পাওয়ার টিলার দিয়ে দৈনিক মজুরির ভিত্তিতে হালচাষের কাজ করতো। ১২ ডিসেম্বর দুপুরে কৃষি জমি চাষ করার সময় সে চলন্ত পাওয়ার টিলারের সিট ভেঙ্গে পড়ে যায়। এসময় তার ডান পা টিলারের ফালের নিচে পড়ে ছিন্নভিন্ন হয়। পরে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে ছেলেটিকে উদ্ধার করে পীরগাছা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। গত ২০ দিন যাবত সে উক্ত হাসপাতালের সার্জারী বিভাগের ১৪নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন। পায়ের অবস্থা খুব খারাপ হওয়ায় তার ডান পা’টি কেটে ফেলতে হয়েছে। এযাবত তার দুইবার অপারেশন হয়েছে। চিকিৎসক বলেছেন ০২ ডিসেম্বরে তার আরেকটি অপারেশন করতে হবে। অপারেশনের ওষুধ ও অন্যান্য খরচ বাবদ প্রায় ৫ হাজার টাকা লাগবে। এছাড়া তার ছেলের সুচিকিৎসার জন্য আরো অনেক টাকার প্রয়োজন। বিলকিস বেগমের স্বামী মশিয়ার পেশায় একজন রাজমিস্ত্রি। ছেলের ওই দূর্ঘটনার পর তিনি ছেলের সাথে হাসপাতালে থাকছেন। এযাবত ছেলের পিছনে তাদের সহায়-সম্বল সব শেষ করেছেন। উপায় না পেয়ে আজ তিনি মানুষের কাছে হাত পাতছেন।

বিলকিস বেগম আরো বলেন, ছেলেটার বিয়ের কথা-বার্তা চলছিল। এসময় ছেলেটা পাওয়ার টিলার চালাতে গিয়ে পঙ্গু হয়ে আজ হাসপাতালে পড়ে আছে। টাকার অভাবে তার ঠিকমতো চিকিৎসাও করতে পারছিনা। ডাক্তার বলেছে ভালোমতো চিকিৎসা না করালে সেফটি হতে পারে। আমি মানুষের কাছে আমার ছেলের চিকিৎসার জন্য সাহায্য ভিক্ষা চাচ্ছি। কেউ সাহায্য পাঠাতে চাইলে এই ০১৮৬৯৬১৮২০২ (নগদ) নম্বরে পাঠাতে পারবেন।

 

 

স্থানীয় ইউপি সদস্য ফিরোজ মিয়া ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বিলকিস বেগমের ছেলে বিজয়ের পাওয়ার টিলার দূর্ঘটনায় পা কেটে ফেলতে হয়েছে।

 

 

তার চিকিৎসার জন্য অনেক টাকার প্রয়োজন। আমি সমাজের বিত্তবানদের তার চিকিৎসায় এগিয়ে আসার জন্য অনুরোধ করছি।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024 Rangpurtimes24.Com
Developed BY Rafi IT