মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ০১:৩৯ পূর্বাহ্ন

ডিমলায় সামাজিক সুরক্ষার আওতাধীন সুবিধাভোগী ব্যক্তিদের নিয়ে মতবিনিময় সভা

ডিমলায় সামাজিক সুরক্ষার আওতাধীন সুবিধাভোগী ব্যক্তিদের নিয়ে মতবিনিময় সভা

জামান মৃধা, ডিমলা (নীলফামারী):

নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার নাউতারা ইউনিয়নের ইউনিয়ন পর্যায়ে সামাজিক সুরক্ষার আওতাধীন সুবিধাভোগী ব্যক্তিবর্গদের নিয়ে এক মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মতবিনিময় সভায় নাউতারা ইউনিয়নের ৯ হাজার ৯১৮ জন সুবিধাভোগী ব্যক্তি এবং এলাকার সুধীজন এ মত বিনিময় সভায় অংশগ্রহন করে।

শনিবার (১১ই নভেম্বর) বিকাল ৪টায় উপজেলার নাউতারা ইউপি চত্বরে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। অত্র ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান আশিক ইমতিয়াজ মোর্শেদ মনির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নীলফামার-১ সংসদীয় আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আফতাব উদ্দিন সরকার।

অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান বাবু নীরেন্দ্রনাথ রায়, সদস্য, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ ও আহ্বায়ক উপজেলা ছাত্রলীগ মো. আবু সায়েম সরকারসহ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিগণ।

বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সবাইকে নৌকার পক্ষে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন নীলফামারী-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আফতাব উদ্দিন সরকার।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের সকল স্তরের মানুষ যাতে উন্নয়নের সুফল ভোগ করতে পারে সেজন্য রাষ্ট্রের সকল ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করেছেন। জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে মানুষ যাতে নির্বিঘ্নে সরকারি সকল সুবিধা হাতের নাগালে পায় সেজন্য বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত শক্তিশালী হলে বাংলাদেশ উত্তরোত্তর পৃথিবীর বুকে মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত হবে।

তিনি আরো বলেন, আগামীতে শেখ হাসিনার সরকার আবারো ক্ষমতায় আসলে দেশ আরো উন্নত হবে। এ এলাকার ব্যাপক সংখ্যক মানুষকে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় এনে ভাতার সংখ্যা ও ভাতার হারও বৃদ্ধি হবে।

উল্লেখ্য, ৬নং নাউতারা ইউনিয়নে নয়টি ওয়ার্ডে উপকারভোগীর সংখ্যা ৯,৯১৮ জন। এরমধ্যে বয়স্ক ভাতার আওতায় ১৪০৯, বিধবা ভাতার আওতায় ৯১২, প্রতিবন্ধী ভাতার আওতায় ৫৬৫, ভিজিডি কার্ডের আওতায় ৪১৫, টিসিবি কার্ডের আওতায় ৩২৭১, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় ২৬০৭, চল্লিশ দিনের কর্মসূচি আওতায় ২৯৩, মাতৃকালীন ভাতাভোগীর আওতায় ৪৩৬ জন।

এছাড়াও গৃহহীন ১০ জন পরিবারের মাঝে পাঁকা ঘর প্রদান করা হয়েছে।

এম.এফ/রংপুর টাইমস

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024 Rangpurtimes24.Com
Developed BY Rafi IT