মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৫০ অপরাহ্ন

ডিমলায় রাস্তা কেটে জমি দখল, ভোগান্তিতে শতাধিক পরিবার

ডিমলায় রাস্তা কেটে জমি দখল, ভোগান্তিতে শতাধিক পরিবার

জামান মৃধা, ডিমলা (নীলফামারী):

নীলফামারীর ডিমলা উপজেলায় চলাচলের রাস্তা কেটে জবরদখলের অভিযোগ উঠেছে হামিদার রহমান নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। এতে জমির মালিকসহ আশপাশের কয়েকটি পরিবার যাতায়াতে ভোগান্তিতে পড়েছেন।

এ নিয়ে জমির মালিক মোকছেদ আলীর ছেলে আব্দুল হক গত ১০ জুলাই রাত ১১টায় ডিমলা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, উপজেলার বালাপাড়া ইউনিয়নের ছাতনাই বালাপাড়া মৌজার বাসিন্দা আব্দুল হক পিতা মোকছেদ আলী গত ১২/০৬/১৯৬৬ ইং তারিখে ২৪০৪ নং কবলা দলিল মুলে এসএ রেকর্ডীয় মালিক সামছুল হক গং এর নিকট হইতে জমি খরিদ করেন। মোকছেদ আলী ভোগদখলে থাকাবস্থায় সর্বসাধারণের চলাচলের সুবিধার্থে ১২ শতাংশ জমি সরকারী রাস্তার অংশ হিসেবে বিএস রেকর্ড করে দেয় এবং রাস্তাটি সরকারী নক্সায় অর্ন্তভুক্ত হয়।

মোকছেদ আলী বলেন, গ্রামের সর্বসাধারণের চলাচলের সুবিধার্থে আমার নিজস্ব জমির উপর দিয়ে রাস্তা করে দেই সেটি বিএস রেকর্ডে সরকারী নক্সায় অন্তর্ভুক্ত হয়। এই রাস্তাটি দিয়ে গ্রামের প্রায় ৪০/৫০টি পরিবারের কয়েক শতাধিক লোকজন দীর্ঘদিন ধরে যাতায়াত করে আসছে। কিন্তু সম্প্রতি সময়ে রাস্তার দুই পার্শ্বের জমির মালিক অত্র এলাকার বাসিন্দা মৃত নায়েব আলীর ছেলে হামিদার রহমানগং রাস্তাটি নিজেদের দাবী করে রাস্তার ১০/১২ ফুট মাটি কোদাল দিয়ে কেটে আবাদি জমিতে রূপান্তরিত করে জবরদখল করে। এবং রাস্তার উপরে এলোপাতাড়ি বাঁশ কেটে সর্বসাধারণের চলাচলের বিঘ্ন সৃষ্টি করে। রাস্তাটি কেটে ফেলায় বিপাকে পড়েছেন স্থানীয় মানুষজন।

কয়েকজন স্থানীয় গ্রামবাসি বলেন, আমাদের চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি জবর দখল করে কেটে ফেলায় ভ্যান, অটোরিক্সা, কৃষি কাজের জন্য ট্রাক্টর চলাচল করতে পারে না। আমাদের খুব কষ্ট হচ্ছে, হাট বাজারে কোন মালামাল নিতে পারছি না। অসুস্থ রোগী হলে গ্রাম থেকে সেই রোগী বের করব সেই উপায়ও নাই।

অভিযুক্ত আব্দুল হক বলেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা তবিবুল ইসলাম, বালাপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম চৌধুরীসহ স্থানীয় ইউপি সদস্য ও গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে ম্যাপের রাস্তা নিয়ে ইতিপূর্বে বিরোধ নিষ্পত্তি করা সম্ভব হয় নাই।

এলাকাবাসীর দাবী বিএস রেকর্ড মুলে সরকারী ম্যাপের নক্সার রাস্তাটি দখল মুক্ত করে সাধারন জনগনের গণদুর্ভোগ দূর করতে প্রশাসনকে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে হবে।

ডিমলা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুর রহিম বলেন, রাস্তা কাটার একটি অভিযোগ পেয়েছি। এসআই ইমরানকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তদন্ত করে আসলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এম.এফ/রংপুর টাইমস

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024 Rangpurtimes24.Com
Developed BY Rafi IT