রবিবার, ২৩ Jun ২০২৪, ১১:৪০ পূর্বাহ্ন

কুড়িগ্রামে একদিনের পুলিশ সুপারের দায়িত্ব পালন করল সরশী

কুড়িগ্রামে একদিনের পুলিশ সুপারের দায়িত্ব পালন করল সরশী

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ

আন্তর্জাতিক কন্যা শিশু দিবস উদ্যাপনের অংশ হিসাবে কুড়িগ্রামে প্রতীকি পুলিশ সুপারের দায়িত্ব পালন করল সরশী।

 

কিশোরী ও যুব নারীদের মধ্যে স্বাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন জাগিয়ে তোলা এবং তাদের মাঝে বিশ্বাস স্থাপন করা। যা তারা স্বপ্ন দেখতে এবং নেতৃত্ব দানে পারদশর্ী এবং স্বাধীন। গার্লস টেকওভার এর অংশ হিসেবে সরশী একদিনের জন্য প্রতীকি হিসেবে কুড়িগ্রাম জেলার পুলিশ সুপারের দায়িত্ব পালন করেন।

প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের আয়োজনে মঙ্গলবার সকালে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে পুলিশ সুপার আল আসাদ মোঃ মাহফুজুল ইসলাম প্রতীকি পুলিশ সুপারের নিকট দায়িত্ব অর্পণ করেন।

কুড়িগ্রাম পুলিশ সুপার আল আসাদ মোঃ মাহফুজুল ইসলাম ফুল দিয়ে সরশীকে স্বাগত জানায় এবং প্রতীকি পরিচালক হিসাবে সরশীকে তার অফিসের অন্যান্য কর্মকর্তাদের সাথে পরিচয় করিয়ে দেন। পরিচয় পর্ব শেষে পুলিশ সুপার কুড়িগ্রাম জেলায় তার কার্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ কাজ সম্পর্কে সরশীকে অবহিত করেন।
পুলিশ সুপার আইন শৃঙ্খলা বজায় রাখার পাশাপামি নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধের মাধ্যমে কন্যা শিশু ও নারী নেতৃত্ব বিকাশে কাজ করে।বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোকজনের সাথে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন। দাপ্তরিক কাজ শেষে সরশী এবং পুলিশ সুপার তাদের অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন। কন্যা শিশুদের ক্ষমতায়নের জন্য এই ধরনের একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ করার জন্য প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

সরশী বলেন,প্রতীকিভাবে পুলিশ সুপারের দায়িত্ব পালন করায় আমার জীবনে একটি নতুন স্বপ্ন তৈরি হয়েছে। আমি কুড়িগ্রাম জেলার পুলিশ প্রশাসনের বিভিন্ন বিভিন্ন কার্যক্রম সম্র্পকে জানতে পেরেছি। আইন শৃঙ্খলা বজায় রাখার ক্ষেত্রে; বাল্যবিবাহ বন্ধে, নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধে এবং নারীদের জন্য সহায়ক পরিবেশ তৈরির লক্ষ্যে কিভাবে কাজ করছে তা জানতে পেরেছি। আজকে আমি প্রতীকি পরিচালক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছি। আমি চাই প্রতীকি শব্দ বাদ দিয়ে প্রকৃত পুলিশ সুপার হতে।

কুড়িগ্রামের কন্যা শিশুদের অধিকার নিশ্চিত করার জন্য কাজ করব এবং কুড়িগ্রাম থেকে বাল্যবিবাহ শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনার স্বপ্ন দেখেন।

আন্তর্জাতিক কন্যা দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে ২০১৬সাল থেকে প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল গার্লস টেকওভার এর আয়োজন করে আসছে। কন্যা শিশুরা সমান সুযোগ এবং সমানাধিকার পেলে বদলে দিতে পারে তাদের নিজের জীবন আশেপাশের সমাজ এবং সমাজের এমন বিশ্বাস থেকেই প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল গার্লস টেকওভার কর্মসূচীর উদ্যোগ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করে। এই কর্মসূচীর মাধ্যমে একজন কন্যা শিশু অথবা যুব নারীকে নেতৃত্ব প্রদানকারীর ভূমিকা পালন করতে সহায়তা করা হয়। এতে করে তার আত্মবিশ্বাস বাড়ে এবং সে নিজের স্বপ্ন পূরণে অঙ্গীকারাবদ্ধ হয়।

সমাজের নেতৃত্ব স্থানীয় যে জায়গা গুলোতে নারী বা মেয়েদেরকে খুব কম দেখা যায় কিংবা তাদের সাফল্যের কথা কম শোনা যায় সে জায়গা গুলোতে নিজেদের অবস্থান, নেতৃত্ব, সিদ্ধান্ত ও সাফল্য যাতে মেয়েরা তুলে ধরতে পারে সেই আত্মবিশ্বাস তৈরির সুযোগ করে দেয়াই গার্লস টেকওভার এর মূল উদ্দেশ্য। যে সকল সংস্থা বা প্রতিষ্ঠানসমূহ নারী ও কন্যা শিশুদের সমতা ও অধিকারে বিশ্বাস করে এবং এ বিষয়ে কাজ করে, তাদের জন্য গার্লস টেকওভার কর্মসূচী প্রতিশ্রুতি ও সম্প্রীতি প্রদর্শনের একটি গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্ম হিসাবে ইতোমধ্যেই প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

বালিকা এবং যুব নারীদের ক্ষমতায়নের জন্য এই গার্লস টেকওভার কর্মসূচীর আয়োজন করে আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-এর চাইল্ড নট ব্রাইড (সিএনবি) প্রকল্প। দাতা সংস্থা এনআরকে টেলিথন-এর আর্থিক সহায়তায় আরডিআরএস বাংলাদেশ এবং এমজেএসকেএস এর মাধ্যমে কুড়িগ্রাম জেলার ৯টি উপজেলা, ৭৩টি ইউনিয়ন পরিষদ ও ৩টি পৌরসভায় বাস্তবায়িত হচ্ছে এই প্রকল্পটি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার একেএম ওহিদুন্নবী,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(প্রশাসন ও অর্থ)রুহুল আমীন, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপপরিচালক আলী আর রেজা,মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপপরিচালক জেবুন নেছা, কুড়িগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি রাজু মোস্তাফিজ প্রমুখ।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024 Rangpurtimes24.Com
Developed BY Rafi IT